রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৮ পূর্বাহ্ন

লক্ষ্মীপুরে বাড়ির সীমানা প্রাচীর নিয়ে দ্বন্ধ, হামলা-মামলায় হয়রানির অভিযোগ

রিপোটারের নাম / ১১৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার লাহারকান্দি ইউনিয়নে বাড়ির সীমানা প্রাচীর চলাচলের রাস্তার নিয়ে দ্বন্ধের জেরে সাবেক সেনা কর্মকর্তা নুর হোসেনের পরিবারের উপর কয়েক দফায় হামলার ঘটনা ঘেেটছে। সর্বশেষ গত ২৩নভেম্বর সকালেও প্রতিপক্ষ নেছার আহমেদের পরিবারের হামলার শিকার হয় তারা। ভুক্তভোগি সাবেক সেনা কর্মকর্তা নুর হোসেন লাহারকান্দি ইউনিয়নের চাঁদখালি গ্রামের ওয়াহেদ আলী হাজী বাড়ির মৃত ওলি আহমেদ এর ছেলে ও অভিযুক্ত নেছার আহমেদ একই বাড়ির মৃত আবদুর রব এর ছেলে।
জানা যায়, সাবেক সেনা কর্মকর্তা নুর হোসেনের পরিবারের সাথে একই বাড়ির নেছার আহমেদের বাড়ির সীমানা প্রাচীর নিয়ে ২০০০সাল থেকে বিরোধ চলে আসছে। এছাড়া উভয় পক্ষের চলাচলের রাস্তা নিয়েও বিরোধ তাদের। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে কয়েক দফা স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা সমাধান করে দিলেও প্রথমে নেছার আহমেদরা মানলেও পরবর্তীতে তারা সমাধান অগ্রায্য করে। এনিয়ে বিভিন্ন সময় জগড়া বিবাধ লেগেই থাকতো। ২০২২সালের মে মাসে নুর হোসেনরা তাদের সীমানায় সীমানা প্রাচীর দিতে গেলে নেছার আহমেদ এর পরিবার বাধা দেয় এবং সীমানা প্রাচীর ভাংচুর করে। এছাড়া সেপ্টেম্বর মাসে নুর হোসেনের পরিবার তাদের সীমানা প্রাচীরের গাছের ঢাল কাটতে গেলে নেছার আহমেদের ছেলে মাসুম, আরিফ অতর্কিত হামলা চালায়। এতে নুর হোসেন এর ভাই আনোয়ার ও দেলোয়ার মারাত্নক আহত হয়। এ ঘটনায় আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। এরপরও তারা বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে বলে অভিযোগ নুর হোসেনের পরিবারের। গত ২৩ নভেম্বর সকালে নেছার আহমেদদের হয়রানিমূলক মামলায় হাজিরা দিতে যাওয়ার পথে নুর হোসেনের ভাই আমজাদের উপর হামলা চালায় মাসুম ও আরিফ। এতে আমজাদ ও তার স্ত্রী নাসরিন আক্তার আহত হয়। হামলার শিকার হয়েও বর্তমানে নেছার আহমেদের পরিবারের হামলার ভয়ে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে নুর হোসেন ও তার ভাইয়েরা। এ ঘটনায় বিচার দাবি করেন সাবেক সেনা কর্মকর্তার পরিবার।
নুর হোসেন বলেন, সীমানা প্রাচীর নিয়ে তারা আমাদের উপর কয়েক দফায় হামলা করেছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের শালিসও মানচে না তারা। তাদের হামলায় আমাদের পরিবারের লোকজন কয়েক দফায় আহত হয়েছে। আমরা প্রশাসনের কাছে এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।
অভিযুক্ত নেছার আহমেদের ছেলে মাসুম বলেন, তাদের অভিযোগ মিথ্যা। গত ২৩ নভেম্বের তারা আমার বাবার উপর হামলা চালিয়ে মারাত্নক আহত করেছে। এছাড়া তারা আমাদের চলাচলের রাস্তা দখল করতে চায়।
স্থানীয় ইউপি সদস্য জহিরুল ইসলাম বলেন, উপর পরিবারের মধ্যে বিরোধটি দীর্ঘদিনের। আমি কয়েকবার উদ্যোগ নিয়েছি সমাধানের। কিন্তু তুচ্ছ ঘটনায় তারা কয়েক দফায় মারামারি করেছে। যা বর্তমানে আদালতে মামলা চলমান। উভয় পক্ষের মধ্যে যদি সমাধানের মন মানসিকতা থাকে তাহলে এখনও সমাধান সম্ভব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ