শিরোনাম
লায়ন্স ক্লাব অব লক্ষ্মীপুর সিটির কমিটি গঠন কুশাখালীতে আমার গ্রাম ফাউন্ডেশনের কমিটি গঠন লক্ষ্মীপুরে অনির্বান ফাউন্ডেশন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের আত্মপ্রকাশ দক্ষিণ হামছাদী ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন কামাল ভূঁইয়া লক্ষ্মীপুরে সনাকের দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলন বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন লক্ষ্মীপুরে অনুষ্ঠিত হয়েছে নিক্বণের নৃত্য প্রতিযোগিতা লক্ষ্মীপুরে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে যুবকের উপর হামলা লক্ষ্মীপুরে ব্যবসায়ীর উপর হামলার অভিযোগ বঙ্গবন্ধু টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন লক্ষ্মীপুর ক্লাব পুকুরদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৫:১৫ অপরাহ্ন

লক্ষ্মীপুর সেইফ হাসপাতালের শততম নরমাল ডেলিভারি

রিপোটারের নাম / ৭২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার: সিজার সর্বসাধরণের কাছে অতি পরিচিত ও স্বাভাবিক শব্দে পরিণত করেছে বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকের অর্থলোভী চিকিৎসকরা। ডাক্তাররা যেন ভুলেই গেছেন নরমাল ডেলিভারির কথা। প্রসূতি নারীরা হাসপাতালের আঙিনায় এলেই দালাল-নার্স-গাইনি চিকিৎসক ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যেন টাকার খনি পেয়ে যান। সুবিধাজনক ও বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে গর্ভবতী মায়েদের সিজার করাতে উৎসাহিত করেন গাইনি চিকিৎসকরা। অথচ এ ধরনের ডেলিভারি মা এবং শিশু দু’জনকেই ঝুঁকির মধ্যে ঠেলে দেয়। তাছাড়া অতিরিক্ত অর্থ খরচের পরেও প্রসব পরবর্তী দীর্ঘ মেয়াদী বিভিন্ন জটিলতার সম্মুখীন হতে হয় মায়েদের। বলা হয়ে থাকে বেসরকারি হাসপাতাল মানেই সিজার। কিন্তু এর সম্পূর্ন ব্যতিক্রম লক্ষ্মীপুরের সেইফ হাসপাতাল। আধুনিক সুবিধা সহ একটি অত্যাধুনিক হাসপাতাল যা প্রসূতি মায়েদের দিচ্ছে স্বাভাবিক ও ব্যাথাবিহীন প্রসবের সুবিধা। যাত্রা শুরুর মাত্র নয় মাসে ১শ’ জন গর্ভবতী মায়েদের নরমাল ডেলিভারির বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে এই হাসপাতালে। তাও শততম ডেলিভারিটা বিনামূল্যে করেছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
সেইফের অসামান্য এ সাফল্যটি বুধবার ১৫ ডিসেম্বর রাতে কেক কাটা ও আলোচনা সভার মাধ্যমে হাসপাতালটির হলরুমে উদযাপন করা হয়। এসময় অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল গাফফার সহ মেডিসিন, গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তারবৃন্দ।
জানা যায়, ৭জন তরুণ মিলে সেবার মহৎ উদ্দেশ্যে ২০২১সালের ১৪ই এপ্রিল (১লা বৈশাখ) লক্ষ্মীপুর শহরের স্টেডিয়াম রোডে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার সমন্বয়ে সেইফ হাসপাতাল শুরু করে। এরআগে তারা ২০১৬সালে শহরের এসআর রোডে সেইফ ডায়াগনষ্টিক এর কার্যক্রম শুরু করে। সেখানে সফলতা পেয়ে হাসপাতালের স্বপ্ন দেখে আজ তারা একটি ২০ বেডের জেনারেল ও সার্জারি হাসপাতাল পরিচালনা করছে।
এছাড়াও জানা যায়, লক্ষ্মীপুর তথা বৃহত্তর নোয়াখালীর একমাত্র এ হাসপাতালেই কানের পর্দার অপারেশন করা যায়। রয়েছে মেডিসিন, শিশু ও গাইনী বিভাগের জন্য আলাদা ওয়ার্ড। এলইডি লাইট সম্বিলিত ডাবল ওটি, উন্নতমানের এ্যানেসথেসিয়া। এক্স-রে, আল্ট্রাসনোগ্রাফীতে আধুনিক মেশিন ব্যবহার, প্যাথলজিক্যাল সকল টেষ্ট অটোমেটিক ও সেমি অটোমেটিক। ইসিজিতে লক্ষ্মীপুরে প্রথম ডেক্সটপ বেইসড রিপোর্ট। এছাড়া সরকার অনুমোদিত নিজস্ব ফার্মেসী ও পরিবহন সহ ২৪ঘন্টা সেবা প্রদান করছে হাসপাতালটি।
হাসপাতালটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজু হাসান বলেন, শুরু থেকেই আমরা সেবার মন মানসিকতা নিয়ে কার্যক্রম শুরু করি। সিজার ব্যবস্থাপনাকে পাল্টে দিতে আমরা নরমাল ডেলিভারির সর্ব্বোচ্চ চেষ্টা করি। ইতিমধ্যে আমরা শততম নরমাল ডেলিভারি করেছি। আমাদের ডাক্তাররাও আন্তরিকতার সহিত রোগিদের পরামর্শ দিয়ে আসছেন। গরিব অসহায় রোগিদের জন্য সেইফ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে আমরা সর্ব্বোচ্চ সহযোগিতা করে থাকি। এছাড়া ডিপ্লোমা নার্স দ্বারা ওয়ার্ড পরিচালনা সহ নিয়মিত ডাক্তার রয়েছেন। বিনামূল্যে রক্তদাতাদের সম্মানার্থে আমরা উপহার প্রদান করে থাকি। বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে রুগি ও স্বজনদের মাঝে দুপুরে খাবারও বিতরণ করেছি আমরা। এছাড়াও আমাদের অটো পানির পিল্টার নামাজের সু-ব্যবস্থা রয়েছে। আমাদের লক্ষ্য আগামীতে আইসিইউ, এনআইসিইউ, সিসিইউ ও কিডনী ডায়ালাইসিজ স্থাপন করা। আশা করি মানুষের সেবার মাধ্যমে আমাদের প্রতিষ্ঠানটি আরো এগিয়ে যাবে।

Hostxver.com


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ