বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৪ অপরাহ্ন

বিদায় বেলায় ভালোবাসায় সিক্ত মসজিদের ইমাম

রিপোটারের নাম / ৯৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ৭ মে, ২০২২

নিজস্ব প্রতিনিধি: এক মসজিদেই কাটিয়েছেন ইমামতি করে ৩৫বছর। ছিলেন এলাকাবাসীর আপন মানুষ হিসেবে। ছিলেন তিন প্রজন্মের ধর্মীয় শিক্ষক হিসেবেও। বিদায় বেলায় তাইতো অশ্রুসিক্ত ভালোবাসায় এলাকাবাসী। একটি অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রিয় ব্যক্তিকে বিদায় দিতে এসেছেন সবাই। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়নের করইতলা গ্রামে ইমাম মাওলানা বেলায়েত হোসেনের বিদায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ইসলাম হাজী ফাউন্ডেশন। তিনি ইসলাম হাজী বাড়ি জামে মসজিদের ইমাম ছিলেন। বিদায় বেলায় ফাউন্ডেশনটির পক্ষ থেকে মাওলানা বেলায়েত হোসেনকে সম্মাননা ক্রেস্ট ও নগদ ১লাখ টাকা উপহার প্রদান করা হয়।
বিদায় বেলায় মাওলানা বেলায়েত হোসেন বলেন, আপনাদের আন্তরিকতা ও ভালোবাসার কাছে আমি ঋণী, আবেগাপ্লুত হয়ে তিনি বলেন আমি আল্লাহর কাছে দোয়া করি যেন তিনি সকলে জান্নাতে এভাবে একসাথে থাকার ব্যবস্থা করে দেন।
এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মান্দারী বাজার জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মাহবুবুর রহমান মাদানী।
ইসলাম হাজী বাড়ি জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক গোলাম মাওলার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শামসুল ইসলামের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, তোতারখিল আয়েশা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ইব্রাহিম, সমাজসেবক ও রাজনীতিবিদ আব্দুল মান্নান লিটন, ইসলাম হাজী বাড়ি জামে মসজিদের সাবেক খতিব নূর মোহাম্মদ রাসেল, বাংলাদেশ ইনসাফ ফাউন্ডেশনের সভাপতি মোঃ হাবিবুর রহমান রুবেল, স্থানীয় সাবেক মেম্বার নূরনবী।
ইসলাম হাজি ফাউন্ডেশনের আয়োজনে সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন মিজানুর রহমান, ওসমান গনি, ইলিয়াস হোসেন জনি, দেলোয়ার হোসেন রাজিব, মনির হোসেন, সাইফুল ইসলাম, ফয়সাল আলম, আরিফুর রহমান সুমন, ফারুক হোসেন, আব্দুল মতিন, দাউদ হোসেন সজিব, আজিজ রায়হান, কামরুল হাসান শান্ত, আজিজুল হাকিম অপু, তানভির হোসেন পাবেল, মিজান, লিটন, রুবেল, পলাশ, ইমরান, তারেক, মিজানুর রহমান বাচ্চু, রাকিব সহ অত্র এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
একই অনুষ্ঠানে স্থানীয় মিজানুর রহমান এর উদ্যোগে ৪০ দিন জামাতে নামাজ পড়ায় ১৪ শিশু-কিশোরকে শিক্ষা উপকরণ ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়।
পরে দোয়া ও মধ্যাহ্নভোজের মাধ্যমে আয়োজনটির সমাপ্তি ঘটে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ