রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০১:২০ পূর্বাহ্ন

লক্ষ্মীপুরে ভূমি কর্মকর্তার অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদে ভুক্তভোগীদের মানববন্ধন 

রিপোটারের নাম / ২১৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ জুন, ২০২২

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার মান্দারী ইউনিয়ন ভূমি অফিসের উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তার অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন স্থানীয় ভুক্তভোগীরা। 

বৃহস্পতিবার (৯ই জুন) সকালে মান্দারী ইউনিয়ন ভূমি অফিসের সামনে ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 

এসময় মান্দারী ইউনিয়ন ভূমি অফিসের উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা মোঃ ইলিয়াস হোসেনের বিভিন্ন অনিয়ম দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, মান্দারী ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মোঃ মাসুদ আলমস, ভুক্তভোগী আবুল হাসেম, আবুল বাশার, নুর হোসন, মোস্তফা, আবুল কাসেম ও আবদুল মান্নান প্রমূখ।

ভুক্তভোগীরা বলেন, উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তা মোঃ ইলিয়াস হোসেন মান্দারী ভূমি অফিসে যোগদানের পর থেকে বিভিন্ন অনিয়ম দুর্নীতি করে আসছে। খাজনা দাখিলায় অতিরিক্ত টাকা আদায়, মোটা অংকের টাকা চুক্তি করে নামজারী করে দেওয়া। যে সব সেবাগ্রহীতাগণ অনলাইনে নামজারী আবেদন করে উপজেলা সহকারী ভূমি কর্মকর্তার অফিসে জমা দেয় সে সব ফাইল প্রতিবেদনের জন্য তার কাছে আসলে তিনি মোটা অংকের টাকা দাবি করেন। টাকা না দিলে সঠিকভাবে প্রতিবেদন দেয় না। টাকার বিনিময়ে আদালতে মিথ্যা প্রতিবেদন দেয়। 

সম্প্রতি মান্দারী ইউনিয়নের মোহাম্মদনগর গ্রামের মোঃ নুরনবী এলাকার মানুষ চলাচলের দীর্ঘদিনের একটি রাস্তাকে বন্ধ করে দিতে চাইলে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও গণ্যমাণ্য ব্যাক্তিগণ সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে সমাধান করেন। এতে দুই পক্ষ বিচার মেনে সালিশ নামায় স্বাক্ষর করেন। কিন্তু কিছুদিন পর আবার নুরনবী বাদী হয়ে আদালতে রাস্তার উপর ১৪৪ধারায় মামলা দায়ের করেন। উক্ত রাস্তায় স্থানীয় প্রায় ১০টি পরিবারের জমি রয়েছে। কিন্তু মান্দারী ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মোঃ ইলিয়াস হোসেন নুরনবীর কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে একক নুরনবীর জমি বলে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেন।  মিথ্যা প্রতিবেদনটি আদালতে জমা দিলে তার এসব অনিয়মের চিত্র স্থানীয় লোকজনের নজরে আসে। তার এসব অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন করে এলাকাবাসী। মানববন্ধনে ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকার প্রায় দুই শতাধিক লোক অংশ গ্রহণ করেন। 

এবিষয়ে মান্দারী ইউনিয়ন ভূমি অফিসের উপ-সহকারী কর্মকর্তা মোঃ ইলিয়াস হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার বিষয় টি সঠিক না। দুয়েকজনের নামজারি করে দিলে তাদের কাছ থেকে প্রারিশ্রমিক হিসেব কিছু টাকা নেই। আমি ভূল প্রতিবেদন দিলে তারা নারাজি দিবে। এতে মানববন্ধন করার কি আছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ